শিরোনাম
  ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত       নান্দাইলে প্রধানমন্ত্রীর সহকারী প্রেসসচিব আশরাফ সিদ্দিকী বিটুর রোগ মুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল       আসন্ন ইউপি নির্বাচনে নৌকার মাঝি হতে চান আমিনুল ইসলাম সোহাগ       সংক্রমণ বাড়ছে চট্টগ্রামে       পেকুয়ায় ৩৬১ কোটি টাকা ব্যয়ে বানৌজা শেখ হাসিনা সাবমেরিন ঘাঁটি সংযোগ সড়ক উদ্বোধন       কুষ্টিয়ায় বিভিন্ন ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে র‌্যাবের অভিযানে ২২ লাখ টাকা জরিমানা       নান্দাইলে দীর্ঘ দিন পরে চালু হলো সিজারিয়ান অপারেশন       তাহিরপুরে স্বপন কুমার দাসের উপর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন।       বানিয়াচংয়ের জলাবন পরিদর্শন করেছেন সাবেক সচিব ও জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান।       মাগুরার শালিখা থানা আয়োজিত ৪০ দলীয় ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগিতার উদ্বোধন    


 

হাসান ফারদিন,

খুলনা প্রতিনিধি ঃ

নানা আশঙ্কার মধ্যেও খুলনায় পবিত্র ঈদুল আজাহায় পশু কোরবানির ক্ষেত্রে খুব একটা প্রভাব ফেলতে পারেনি। বিগত বছরের তুলনায় মাত্র ১১ শতাংশ কম পশু কোরবানি হয়েছে। ফলে পশু বিক্রি নিয়ে খামারী ও প্রাণি সম্পদ অধিদপ্তর কৃষক ও চাষীদের ভোগান্তি নিয়ে যে শঙ্কা করেছিলেন তা অনেকটাই কাটিয়ে উঠেছেন। শেষ মুহূর্তে পশু ক্রয়ে মানুষের আগ্রহ বৃদ্ধি পাওয়ায় খামারীরা আর্থিক ক্ষতি থেকে রক্ষা পেয়েছেন। প্রাণি সম্পদ দপ্তরের দাবি, খুলনায় কোরবানীযোগ্য সব পশু বিক্রি হয়েছে।
খুলনা জেলা প্রাণিসম্পদ অফিস সূত্রে জানা যায়, এ বছর খুলনায় কোরবানি হয়েছে মোট ৬১ হাজার ১৯৩ টি পশু। গতবছর কোরবানি হয়েছিল ৬৮ হাজার ৮৫৫ টি পশু। এবছরের কোরবানি হওয়া পশুর মধ্যে রয়েছে গাভী/বকনা ২ হাজার ৩৯৪ টি, ষাঁড় ৩২ হাজার ৮২২টি, মহিষ ১০টি, ছাগল ২৮ হাজার ৩৫৬টি এবং ভেড়া ৪৭৮টি। তবে সিটি কর্পোরেশন এলাকায় উল্লেখযোগ্যসংখ্যক পশু কোরবানিী হয়েছে। যার মধ্যে ৯৭০ টি গাভী/বকনা, ১২ হাজার ১৪০ টি ষাঁড়, ২টি মহিষ, ১০ হাজার ২৬৫ টি ছাগল এবং ৪২টি ভেড়া। অপরদিকে হাটের পাশাপাশি এ্যাপসের মাধ্যমেও ৮৪৭টি গরু ও ১০৭টি ছাগল বিক্রি হয়েছে।
সূত্রটি আরও জানিয়েছে, এবার খুলনায় ২৮টি স্থায়ী হাটের মাধ্যমে পশু বিক্রি হয়। এরমধ্যে একটি সিটি কর্পোরেশন এলাকায়। বাকি ২৭টি উপজেলা পর্যায়ে। এসব হাটে মোট ৬ হাজার ৮৯০ জন পশু খামারী পশু তোলে বিক্রি জন্য। জেলার খামারীদের খামারে কোরবানিযোগ্য পশুর পরিমাণ ছিল ৪৫ হাজার ১৮১টি। এর মধ্যে ২৮ হাজার ৩৯২টি গরু ও বাকি ১৬ হাজার ৭৮৯ টি ছাগল ও ভেড়া। চাহিদার বাকি পশু পার্শ্ববর্তী জেলার খামারীরা জোগান দেয়।
খামারীরা জানান, গত কয়েকবছর ধরে কোরবানিকে কেন্দ্র করে খুলনায় গরু মোটাতাজা করে বিক্রির প্রবণতা বেড়েছে। যার কারণে গ্রাম থেকে শুরু করে নগরীর ভেতরেও তৈরি হয়েছে একাধিক খামার। কিন্তু করোনা আতংকে এবার কোরবানীর বিষয়ে আগ্রহ কমেছিল অনেক মুসুল্লীর। ফলে পশু বিক্রি নিয়ে আতংক বেড়েছিল খামারীদের। তবে শেষ মুহূর্তে মানুষের আগ্রহ বাড়ায় আশাতীত পশু বিক্রি হয়েছে বলে দাবি করেছেন খামারীরা।
ডুমুরিয়ার এক গ্রামের খামারি খোকোন হোসেন বলেন, ‘এবার কোরবানিযোগ্য গরু নিয়ে চরম দুশ্চিন্তায় ছিলাম। করোনা পরিস্থিতির কারণে হাটের ওপর ভরসা করতে পারছিলাম না। তবে শেষ পর্যন্ত আমার ১২টি গরুর মধ্যে সবগুলোই বিক্রি হয়ে গেছে। দামও পেয়েছি আশানুরুপ।’
একইরকম তথ্য দিয়েছেন বটিয়াঘাটা উপজেলার আশিক রহমান। তিনি বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতির কারণে এবার প্রথম দিকে ব্যাপারীরা গরু কেনায় আগ্রহী ছিলেন না। আমার কোরবানিযোগ্য ৮টি গরু ছিল। হাটে তোলার পর সবগুলোই বিক্রি হয়ে গেছে। সবগুলো পশুর গড়ে দাম হয়েছে প্রায় ৯০ হাজার টাকা।’
খুলনা জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা এসএম আউয়াল হক বলেন, ‘করোনাকালীন সময়ে আমরা ধারনা করেছিলাম ২০শতাংশ বিক্রি কম হবে। এজন্য প্রথম দিকে সংকট মোকাবেলায় আমরা খামারীদের বাড়ি থেকেই গুরু বিক্রির পরামর্শ দিয়েছিলাম। এছাড়াও জেলা প্রশাসনের সহযোগীতায় একটি এ্যাপসও তৈরি করেছি যাতে সহজে গরু বিকিকিনি করতে পারে খামারীরা। এ্যাপসের মাধ্যমেও আশানুরুপ বিক্রি হয়েছে। এ্যাপসের মাধ্যমে পশু বিক্রি হয়েছে ৬ কোটি ৭লাখ ১৮হাজার ৫৬০টাকার। সব মিলিয়ে আমাদের ধারনার থেকেও বেশী বিক্রি হয়েছে কোরবানির পশু।’


ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

নান্দাইলে প্রধানমন্ত্রীর সহকারী প্রেসসচিব আশরাফ সিদ্দিকী বিটুর রোগ মুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল

আসন্ন ইউপি নির্বাচনে নৌকার মাঝি হতে চান আমিনুল ইসলাম সোহাগ

সংক্রমণ বাড়ছে চট্টগ্রামে

পেকুয়ায় ৩৬১ কোটি টাকা ব্যয়ে বানৌজা শেখ হাসিনা সাবমেরিন ঘাঁটি সংযোগ সড়ক উদ্বোধন

কুষ্টিয়ায় বিভিন্ন ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে র‌্যাবের অভিযানে ২২ লাখ টাকা জরিমানা

নান্দাইলে দীর্ঘ দিন পরে চালু হলো সিজারিয়ান অপারেশন

তাহিরপুরে স্বপন কুমার দাসের উপর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন।

বানিয়াচংয়ের জলাবন পরিদর্শন করেছেন সাবেক সচিব ও জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান।

মাগুরার শালিখা থানা আয়োজিত ৪০ দলীয় ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগিতার উদ্বোধন

খুবি শিক্ষার্থীকে ছাত্রাবাস মালিকদের হুমকি।

“গাজীপুরের কৃতি সন্তান হওয়ায় ডাঃ আসিফ মাহমুদ কে গাজীপুরবাসীর শুভকামনা”

কোন দোষে দোষী তারা- জানতে চায় ডিজিটাল উদ্যোক্তাগণ

গাজীপুর জেলার কালিয়াকৈরে বিভিন্ন জায়গায় ডাকাতের আতঙ্ক।

সফিপুর বাজারে মাইক দিয়ে সতর্ক করেছেন জনাব আমিরুল ইসলাম লিংকন

গাজী গ্রুপের উদ্যোগে করোনা টেস্টিং বুথ পেল রুপগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স।

ডিমলায় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ ও নদী ভাঙ্গন পরিদর্শন করলেন জামায়াতে

রাজনীতির মাঠে ফিরে আসছে শহীদ শেখ আব্দুস সালাম পুত্র ইন্জিনিয়ার শেখ মিজান!

নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছেন আইনজীবী আরিফুল হক সুজন।

বাংলাদেশে চীনের সিটি নির্মাণের প্রস্তাব: আশঙ্কা ও সম্ভাবনা।